বাস্তব জীবনে ১ম কিস যাকে দিয়েছিল জানালো মিমি চক্রবর্তী

লকডাউন শুরু হওয়ার আগে লন্ডনে শুটিংয়ের কাজে ব্যস্ত ছিলেন টলিউড অভিনেত্রী মিমি চক্রবর্তী এবং তার টিম। লকডাউনের খবর পেয়ে শুটিংয়ের কাজ অর্ধ সম্পন্ন রেখেই সত্বর দেশে ফিরে এসেছিলেন তিনি।আনলক পর্বে আবারো লন্ডনে ফিরে গিয়ে শুটিংয়ের কাজ শুরু করেছেন অভিনেত্রী। তার মাঝেই মিডিয়ার সামনে ধরা দিলেন তিনি। সাক্ষাৎকারে নিজের জীবনের ব্যক্তিগত বহু তথ্যই প্রকাশ্যে আনলেন তিনি।

নিজের জীবনের প্রথম প্রেম থেকে শুরু করে প্রথম অডিশন, এমনকি প্রথম চুম্বনের অভিজ্ঞতাও শেয়ার করলেন অভিনেত্রী। মিমি জানিয়েছেন, কলেজে থাকা কালীন তিনি তার জীবনের প্রথম চুম্বন করেছিলেন।তবে কে ছিল তার প্রথম প্রেম, সে সম্পর্কে অবশ্য কিছু জানাননি মিমি। কলেজে থাকাকালীন তিনি তার জীবনের বেশ কিছু বিশেষ মুহূর্ত কাটিয়েছেন।উল্লেখ্য, শুটিংয়ের কাজের জন্য মিমি শীঘ্রই

লন্ডনে যাওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। এই করোনার আবহে সংক্রমণের ভয় এড়াতে করোনা টেস্ট করেছিলেন তিনি।তিনি সহ তার পুরো টিমের করোনা টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে বলেই আশ্বস্ত করেছেন অভিনেত্রী। বর্তমানে তিনি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সিনেমার শুটিং সম্পন্ন করতে উদ্যোগী হয়েছেন।

আরও পড়ুন=টুর্নামেন্ট শুরুর আগে থেকেই চলছিল আলোচনা। বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইয়ন মরগ্যান থাকতেও দিনেশ কার্তিককে অধিনায়কত্ব দেয়ায় বেশ সমালোচনাও শুনতে হয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে। তবে নিয়মিত অধিনায়ক কার্তিকেই ভরসা রেখেছিল কেকেআর। কিন্তু কার্তিক নিজেই যেনো নিজের ওপর আর ভরসা রাখতে পারলেন না।শুক্রবার মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে মাঠে নামার ঘণ্টাছয়েক আগে নিজ থেকে অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছেন দিনেশ কার্তিক। তার জায়গায় শুক্রবারের ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছেন ইয়ন মরগ্যান। টুর্নামেন্টের বাকি ম্যাচগুলোতে তিনিই এ দায়িত্ব পালন করবেন। মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়েই আইপিএলে অধিনায়কত্বের অভিষেক হয়েছে মরগ্যানের।

কেকেআরের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে কার্তিক জানিয়েছেন, মূলত ব্যাটিংয়ের দিকে নজর দেয়ার লক্ষ্যেই অধিনায়কত্ব ছেড়েছেন তিনি। কেননা এবারের আসরে একটি ফিফটি হাঁকালেও এখনও পর্যন্ত প্রত্যাশামাফিক ব্যাটিং করতে পারছেন না তিনি। পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, ৮ ম্যাচে মাত্র ১১২ রান করতে পেরেছেন কার্তিক। তবে কলকাতার সাবেক ও সফলতম অধিনায়ক গৌতম গম্ভীরের মতে, অধিনায়ক বদলের আসল কারণ ভিন্ন। এছাড়া তার বদ্ধমূল ধারণা, অধিনায়ক বদল করলেও কলকাতার বর্তমান অবস্থার খুব একটা পরিবর্তন হবে না। কেননা ক্রিকেটে সম্পর্কের জোরের কোনো জায়গা নেই, এখানে পারফরম্যান্সই মুখ্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *